ফেসবুক বুস্টিং খরচ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা

ফেসবুক বুস্টিং বর্তমানে জনপ্রিয় একটি মাধ্যম। এটির ব্যবহার করে দেশের অনেক অনলাইন-অফলাইন ব্যবসায়ী তাদের প্রচার ও বিক্রির কাজ সম্পাদনা করেছেন।

কারণ ফেসবুক বুস্টিং যেমন নিজে নিজে সহজে করা যায় তেমনি এর খরচ অন্যান্য বিজ্ঞাপন মাধ্যম থেকে কম।

ফেসবুক বুস্টিং খরচ কি?

ফেসবুক বুস্টিং হলো এক ধরনের পেইড বিজ্ঞাপন। এটি করতে হলে ইউএস ডলার খরচ করতে হবে। ডলার খরচ করার মাধ্যমে ফেসবুকে যে বিজ্ঞাপন দেয়া হয় তাই হল ফেসবুক বুস্টিং খরচ।

ফেসবুক নিয়ম অনুযায়ী, প্রতি 24 ঘন্টা বা ১ দিনের জন্য সর্বনিম্ন ১ ডলার থেকে সর্বোচ্চ ২৫০ ডলার পর্যন্ত বুস্টিং করা যায়।

ফেসবুক বুস্টিং খরচ কত?

যেহেতু ডলার খরচ করে বুস্টিং করা হয় সেহেতু ব্যাংক থেকে ডলার কিনে বুস্টিং করতে হবে। বর্তমানে বাংলাদেশ ব্যাংকের রেট অনুযায়ী, ১ ডলার কিনতে খরচ পড়বে ১১৮ টাকা।

বাংলাদেশ সরকারের ভ্যাটনীতি অনুযায়ী, সকল ধরনের অনলাইন বিজ্ঞাপনের উপর শতকরা ১৫ ভাগ ভ্যাট দিতে হবে। এই ভ্যাট ফেসবুক বুষ্টিং এর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে।

অর্থাৎ ফেসবুক বুস্টিং এর জন্য প্রতি ডলার খরচ পড়বে ১১৮ + ১৫% = প্রায় ১৩৬ টাকা।

আবার আপনার ব্যবসায়ের যদি BIN (Biusiness Identification Number না থাকে, তাহলে ফেসবুক কোম্পানি আরো ১৫% ট্যাক্স কেটে নিবে।

তখন প্রতি ডলারে খরচ পড়বে ১১৮+৩০%= ১৫৪ টাকা।তবে বিন নম্বর কালেক্ট করে ১৫% ট্যাক্স সহজে কমানো যায়।

ফেসবুকে বুস্টিং খরচ কিভাবে পরিশোধ করা যায়?

ফেসবুক কখনো বাংলাদেশি টাকা গ্রহণ করে না। এই কোম্পানি সবসময় ইএস ডলার গ্রহণ করে থাকে।

বাংলাদেশ থেকে ফেসবুক বুষ্টিং এর খরচ পেমেন্ট করতে হলে ডুয়েল কারেন্সির কার্ড থাকতে হবে।
মাস্টার কার্ড, ভিসা কার্ড, ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড থাকতে হবে, যেখানে অবশ্যই ডলার লোড থকতে হবে।

এজন্য নিজের ব্যক্তিগত পাসপোর্ট দিয়ে ব্যাংক থেকে ডলার এনডোর্সমেন্ট করতে হবে। পাসপোর্ট দিয়ে ডলার এনডোর্সমেন্ট ছাড়া নিজে নিজে ফেসবুক বুস্টিং করা যাবে না।

তবে আপনি যদি কোন এজেন্সির মাধ্যমে বুস্ট করে থাকেন, তাহলে তাদেরকে বিকাশে বা নগদে পেমেন্ট করার মাধ্যমে টাকা প্রদান করবেন। তারা তাদের কার্ড ব্যবহার করে ফেসবুকে ডলারে পেমেন্ট করে দিবে।

ফেসবুক বুস্টিং এ কত ডলার খরচ করা উচিত?

কোন উদ্দেশ্যে আপনি ফেসবুক বুস্টিং করবেন তার উপর এর খরচ নির্ভর করবে। মূলত বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা তিন ধরনের উদ্দেশ্যে সবচেয়ে বেশি ফেসবুক বুস্টিং করে থাকেন।যেমন-

  • ফেসবুক পেজে লাইক বাড়ানোর জন্য।
  • মেসেজ বক্সে কাস্টমারদের কাছ থেকে মেসেজ পেতে।
  • পোস্টে বেশি বেশি লাইক কমেন্ট করার জন্য।

উদ্দেশ্য নির্ধারণ করার পর আপনাকে টার্গেট করতে হবে যে, আপনি কত জন মানুষকে আপনার এডটি দেখাতে চান এবং কেমন সাড়া পেতে চান।

এ ব্যাপারে নিচে একটি পরিসংখ্যান দেখানো হলো-

উদ্দেশ্য(Goals)ডলাররিচম্যাসেজপেজ লাইক
Get More Engagement12000+
Get More Message1700+5-20
Page Promotion11000+20-100

অর্থাৎ প্রতি ডলারে আলাদা আলাদা উদ্দেশ্যে ভিন্ন ভিন্ন ফলাফল পাওয়া যাবে। আপনার কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের উপর ভিত্তি করে বুস্টিং করবেন।

আপনি যদি নতুন নতুন বুস্টিং করতে চান তাহলে অল্প বাজেট দিয়ে শুরু করতে পারেন। যেমন-

  • ৫ ডলার ৩ দিনের জন্য।
  • ১০ ডলার ৪ দিনের জন্য।

আর আপনি যদি ভালো এবং প্রোফেশনাল ফলাফল পাওয়ার জন্য বুস্টিং করতে চান তাহলে –

  • ১৫ ডলার পাঁচ দিনের জন্য।
  • ৩৫ ডলার সাত দিনের জন্য।
  • ৫০ ডলার ১০ দিনের জন্য।

তবে একটা বিষয় মাথায় রাখবেন যে, প্রতি ডলার খরচের জন্য ৮০০ থেকে ৩০০০ জন মানুষের কাছে আপনার পোস্টটি পৌঁছাবে। সে অনুযায়ী সিদ্ধান্ত গ্রহন করুন।

ফেসবুকে বুস্টিং খরচ কিভাবে কমানো যায়?

যদিও ফেসবুক এড ফরমেটের উপর খরচের পার্থক্য দেখা যায়, তারপরও কিছু কৌশল এবং এড পলিসি রয়েছে। সেগুলো মেনে চললে অল্প খরচে ভালো ফলাফল নিয়ে নিয়ে আসা যায়।ফলে অযথা খরচ বাঁচিয়ে কম ডলার খরচ করে বেশি ফলাফল আনা যায়।

সেই কৌশলগুলো হল –

  • পোস্টের ক্যাপশন ছোট করে দেওয়া। মিনিমাম ৩০ থেকে ৫০ শব্দের মধ্যে টেক্সট রাখলে রিচ ভালো হবে।
  • পোস্টের ছবিগুলোর মধ্যে অতিরিক্ত লেখা না রাখা।
  • ফেসবুক বুস্ট সেটের সময় প্লেসমেন্ট(Placement) অপশনে শুধু ফেসবুক ফিড( Facebook Feed) ও মেসেঞ্জার(Messenger) সিলেক্ট করে দেয়া।
  • পিক আওয়ার অর্থাৎ রাত ৭টা থেকে ৮টার মধ্যে পোস্ট রান করা।
  • সঠিক অডিয়েন্স বাছাই করা।

এই কাজগুলো ঠিকঠাক করতে পারলে অল্প খরচে অনেক ভালো রেজাল্ট নিয়ে আসা যায়।

এজেন্সিগুলো বুস্টিং করতে কত খরচ নেয়?

বাংলাদেশে অনেক বুষ্টিং এজেন্সি বা কোম্পানী রয়েছে। এক একটি কোম্পানির সার্ভিস চার্জ এক এক রকম। তাই তাদের সার্ভিস খরচের মধ্যে পার্থক্য থাকে।

তবে যেহেতু ব্যাংক থেকে ভ্যাটসহ ১ ডলার কিনতে খরচ পড়ে ১৩৬ টাকা। সেহেতু এজেন্সিভেদে প্রতি ডলারে ১০-২০ টাকা পর্যন্ত নিয়ে থাকে।

তার মানে এজেন্সি গুলো প্রতি ডলারে ১৪৫-১৫৫ টাকা পর্যন্ত নিয়ে থাকে। বিভিন্ন এজেন্সির বিভিন্ন ধরনের প্যাকেজ রয়েছে। তারা সেই প্যাকেজ অনুযায়ী তাদের। সার্ভিস অফার করে থাকে।

সর্বশেষ,
ফেসবুক বুস্টিং নিয়ম অনুযায়ী করা উচিত। নিজে না জেনে বুস্টিং করলে বেশিরভাগ সময় শুধু ডলার খরচ হবে কিন্তু ফলাফল তেমন আসবে না। আর নিজে প্রশিক্ষণ বা শিখে থাকলে বুস্ট করলে ভালো ফলাফল পাওয়া যায়।

তবে নিজে ভালোভাবে না জানলে অবশ্যই ভালো এজেন্সির সাথে যোগাযোগ করা উচিত। ভালো এজেন্সিরা সবসময় কম খরচে বেশি ফলাফল আনতে চেষ্টা করবে যা বুস্টিং খরচ সাশ্রয়ী করবে।